সূফী গল্পঃ “একই প্রশ্নের বিভিন্ন উত্তর”

সূফী গল্পঃ “একই প্রশ্নের বিভিন্ন উত্তর”

একদা একজন সূফী গুরু সত্য অনুসন্ধানী ব্যক্তির সাক্ষাৎপ্রাপ্ত হলে ঐ ব্যক্তিটি গুরুকে জিজ্ঞাসা করেনঃ

“আমার আপনার কাছে কেবলমাত্র একটি প্রশ্নের উত্তরই জানবার আছে। এটা এমন হয় কেন যে, যেখানেই আমি যাই না কেন আমি সবসময়ই বিভিন্ন উপদেশ লাভ করি বিভিন্ন সূফী গুরুর কাছ থেকে? আমি কোন উপদেশ টাকে তাহলে সঠিক বলে মনে করবো!

গুরু উত্তর দিলেনঃ

” আমার সঙ্গে এসো আমরা এই পুরো সদর জুড়ে হাঁটবো এবং তারপর দেখি আমরা এই রহস্যের কোন কুলকিনারা করতে পারি কীনা।”

তারা হাঁটতে হাঁটতে একটি বাজারে প্রবেশ করল এবং সূফী গুরুটি একটি মুদি দোকানদারকে জিজ্ঞাসা করলঃ

“বলতো প্রার্থনা করার সময় কখন?”

তখন মুদি দোকানদারটি উত্তর দিলঃ

“এখন সকালবেলার প্রার্থনার সময়।”

এরপর তারা আবার হাঁটতে লাগল। কিছুক্ষণ পর তারা একটি দর্জির দোকানের সামনে গিয়ে দাড়াল এবং সূফী গুরু দর্জিকে জিজ্ঞাসা করলঃ

“প্রার্থনার সময় কখন?”

দর্জিটি জবাব দিলঃ

“এটা হল দুপুরবেলার প্রার্থনার সময়।”

এরপর আরও কিছুক্ষণ তারা দুজনে কথাবার্তা ও একসাথে চলার পর সূফী গুরুটি একজন বই বাঁধাইকারীর দিকে অগ্রসর হলেন এবং তাকে জিজ্ঞাসা করলেনঃ

প্রার্থনার সময় কখন?”

লোকটি উত্তর দিলঃ

“এখন সময় হল বিকেলবেলার প্রার্থনার।”

এরপর গুরু তার সেই সাথী ব্যক্তিটির দিকে মুখ ফেরালেন এবং বললেনঃ

“তুমি কী এখনও এই পরীক্ষাটি চালিয়ে যেত চাও নাকী এখন তুমি সন্তুষ্ট যে জাগতিক দৃৃষ্টিতে একই প্রশ্নের বিভিন্ন উত্তর হতে পারে, এসকল উত্তর চির বর্তমান সত্যের সাথে সংগতিপূর্ণ?”

0Shares

নাজিউর রহমান নাঈম

আমিকে খুঁজে বেড়াচ্ছি। কিন্তু সে যে কোথায় লুকাইলো ও এই লোকটি যে তা বড় আশ্চর্যের বিষয়! আমি হারিয়ে যা হল একে কীই-বা বলা যায় বলুন। এখন যাকে দেখছেন সে তো অন্য কাজ করে বেড়াচ্ছে, তার পরিচয়ও নিশ্চয়ই বদলে গেছে। তাহলে আপনি কাকে দেখছেন? দেখছেন আপনাকে আপনার চিন্তাকে যা আপনাকে আমাকে দেখাচ্ছে বা কল্পনা করাচ্ছে। তাহলে শুধু শুধু পরিচয় জেনে কী হবে বলুন। তার চেয়ে বরং কিছু সাইকোলাপ-ই পড়ুন ও নিজেকে হারিকেন নিয়ে খুঁজতে বেরিয়ে পড়ুন। পথিমধ্যে হয়ত কোথাও দেখা হয়েও যেতে পারে!!! সে পর্যন্ত- কিছু কথা পড়ে থাকুক জলে ভেজা বিকালে খুঁজে চলুক এই আমি পিলপিল করে অনন্ত "আমি" র অদৃশ্য পর্দার আড়ালে

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *